1. news@esomoy.com : বার্তা বিভাগ : বার্তা বিভাগ
  2. admin@esomoy.com : admin :
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৭:১৪ পূর্বাহ্ন

বাঁশখালী গন্ডামারার বহিস্কৃত চেয়ারম্যান লেয়াকতের বাড়ী থেকে ১০ অস্ত্রসহ ৭২ রাউন্ড গুলি উদ্ধার

এনামুল হক রাশেদী
ইপেপার / প্রিন্ট ইপেপার / প্রিন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরোঃ 

দক্ষিন চট্টগ্রামের উপকূলীয় জনপদ বাঁশখালী উপজেলার গন্ডামারা ইউনিয়নের বহিস্কৃত ইউপি চেয়ারম্যান, দেশের সর্ববৃহৎ ১৩২০ মেঃ ওঃ বেসরকারী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প এস এস পাওয়ার প্ল্যান্টের আলোচিত সমালোচিত বিএনপি নেতা লেয়াকত আলী (৫৪)’র গন্ডামারার গ্রামের বাড়িতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমান অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করেছে।

এ নিয়ে লেয়াকতেন নিজ এলাকা সহ সারা চট্টগ্রামে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্ঠি হয়েছে।

উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে ছিল ১০ টি অত্যাধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র ও ৭২ রাউন্ড গুলি।

৮ ফেব্রুয়ারী’২৪ ইং বৃহস্পতিবার রাত ১১.৩০ টার সময় বাঁশখালী থানা পুলিশ নির্ভরযোগ্য গোপন সূত্রের সংবাদের ভিত্তিতে লেয়াকত আলীর গ্রামের বাড়ি গন্ডামারা ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের খামার পাড়ার তার নিজ বসতঘরে ব্যাপক তল্লাশী চালিয়ে ২টি বিদেশী পিস্তল, ৫টি দেশীয় তৈরি এলজি, ২টি কাটা একনলা বন্দুক, ১টি দেশীয় তৈরি একনলা বন্দুক, বিভিন্ন আগ্নেয়াস্ত্রের ৭২ (বাহাত্তর) রাউন্ড গুলি, ২৬টি কাতুর্জ, ৫টি চাইনিজ কুড়াল, ১টি কিরিচ, ৬টি কাঠের বাটযুক্ত ধারালো রাম দা এবং ৪০টি বিভিন্ন সাইজের গাইট্টা গাছের লাঠি উদ্ধার করা হয়।

৯ ফেব্রুয়ারী শুক্রবার দুপুরে বাঁশখালী থানার হলরুমে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করেন চট্টগ্রামের সহকারী পুলিশ সুপার (আনোয়ারা সার্কেল) সোহানুর রহমান সোহাগ ও বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তোফায়েল আহমেদ।

উল্লেখ্যঃ তুমুল আলোচিত সমালোচিত ও বিতর্কিত লেয়াকত আলীর বিরুদ্ধে রাস্ট্রবিরোধী কর্মকান্ড সহ অস্ত্র, চাঁদাবাজি, পুলিশকে হামলা, বিস্ফোরক, বিশেষ ক্ষমতা আইন, ১৯৭২ সালের অনুচ্ছেদ- ৭৩(২খ) গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ধারাসহ সর্বমোট ২১টি মামলা তদন্তাধীন ও বিচারাধীন রয়েছে বলে জানা গেছে।

বাঁশখালী উপজেলার গণ্ডামারা ইউপি’র বহিঃস্কৃত চেয়ারম্যান লেয়াকত আলী কে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৭ ফেব্রুয়ারী বুধবার সন্ধ্যায় ঢাকার নয়াপল্টন এলাকার একটি আবাসিক হোটেল থেকে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) গ্রেফতার করে।

জানা যায় দল থেকে বহিস্কৃত নেতা লেয়াকত আলী কিছুদিন আগে জেল থেকে জামিনে ছাড়া পেয়ে পুনরায় বিএনপি’র ঢাকা ও চট্টগ্রামের জনসভায় তার অনুসারীদের নিয়ে অংশগ্রহন করার মাধ্যমে পুনরায় আলোচনায় উঠে আসে এবং তার দল বিএনপি তার বহিস্কারাদেশ প্রত্যাহার করে নেয়।

এরপর দির্ঘ সময় এলাকায় অবস্থান করে প্রতিরাতে শত শত লোকজন নিয়ে পূঁথি পাঠের আসর জমিয়ে এবং নানান রকম সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকান্ড পরিচালনা করে সোস্যাল মিডিয়ায় আলোচিত পোস্ট করে নিজের অনুভুতি প্রকাশ করে আসছিল।

এসময় জামিনের শর্ত লংঘন করে বিভিন্ন কর্মকান্ড পরিচালনা করায় বাঁশখালী থানা পুলিশ অভিযানে গিয়েও শত শত লোকজনের প্রতিরোধের মুখে তাকে গ্রেফতারে ব্যর্থ হয়।

সর্বশেষ ২/৩ দিন আগে লেয়াকত আলী- “বাঁশখালীর পদবিহীন দলীয় নেতা কর্মিদের নিয়ে বাঁশখালী ও হাটহাজারী থানার গায়েবী মামলা থেকে আগাম জামিনের আশায় মহামান্য হাইকোর্টে প্রবেশ করছি, সকলের দোয়া চাই।” পোস্ট দিয়ে ঢাকায় অবস্থান করাকালীন তাকে গ্রেফতার করা হয়।

তার গ্রেফতারের খবরে মুক্তির দাবীতে তার গ্রাম গন্ডামারা এলাকায় কয়েকশ নারী পুরুষ ব্যানার ও লাটিসোটা নিয়ে মিছিল করলে বৃহস্পতিবার রাতে লেয়াকতকে সাথে নিয়ে গন্ডামারা এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে বাঁশখালী থানা পুলিশ।

বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তোফায়েল আহামদ জানান, লেয়াকতকে রিম্যান্ডে এনে অধিকতর তথ্য জানতে আদালতে আবেদন করা হয়েছে।

কোর্ট খুললেই জানানো যাবে।

গন্ডামারার আইন শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে এবং বাঁশখালী থানা পুলিশ সতর্ক রয়েছে বলে জানান ওসি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
All rights reserved © 2019
Design By Raytahost