1. news@esomoy.com : বার্তা বিভাগ : বার্তা বিভাগ
  2. admin@esomoy.com : admin :
শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ১১:০৪ পূর্বাহ্ন

বিখ্যাত মৌলভীবাজার তারই মধ্যে ৫৩ প্রকারের চাসহ হাসেম ভেরাইটিজ স্টোর ___মোয়াজ্জেম চৌধুরী

মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন চৌধুরী
ইপেপার / প্রিন্ট ইপেপার / প্রিন্ট

বিখ্যাত মৌলভীবাজার তারই মধ্যে ৫৩ প্রকারের চাসহ হাসেম ভেরাইটিজ স্টোর ___মোয়াজ্জেম চৌধুরী

————————————————————

সিলেট, মৌলভীবাজার , হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ চারটি জেলা নিয়ে আমাদের বিভাগ। আমও গর্বিত এই বিভাগের তথা মৌলভীবাজার জেলার সন্তান। আমি একজন সিলেটি এটা আমার গৌরব। আমাদের গৌরব।

এই সিলেট সারা বিশ্বের কাছে বিভিন্ন ভাবে গৌরবোজ্জ্বল স্থান। যে এমন কেউ নেই সিলেট চিনে না। বিশ্বের দরবারে পর্যটন নগরী মানেই বাংলাদেশ তথা সিলেট।

আমাদের মৌলভীবাজার নিয়ে আজকে কিছু লিখতে ইচ্ছে হলো তাই লিখতে বসলাম কিছু কথা লিখবো বলে।

সাতটি উপজেলা নিয়ে আমাদের মৌলভীবাজার জেলা। মৌলভীবাজার, শ্রীমঙ্গল, কমলগঞ্জ, রাজনগর, কুলাউড়া, জুড়ি ও বড়লেখা এই আমাদের জেলা। প্রত্যেকটা উপজেলার বিভিন্ন গুনে গুণান্বিত। রয়েছে বিভিন্ন পর্যটনের স্থান লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান, মাধবপুর লেইক, বাংলাদেশ চা গবেষণা ইন্সটিটিউট (বিটিআরআই), একের পর এক চা বাগান, নাম লিখে যে শেষ করা যাবে না এক কথায় চায়ের রাজধানী আমাদের মৌলভীবাজার জেলাই।

হামহাম জলপ্রপাত, মাধবকুণ্ড জলপ্রপাত, এছাড়া রয়েছে পাঁচ তারকা হোটেল গ্রান্ড সুলতান, দুসাই রিসোর্ট, মন্যু ব্যারেজ, মৌলভীবাজার পৌর পার্ক, বাইক্কা বিল, আইল হাওর, মনু নদী, ধলাই, একের পর এক সৌন্দর্য উপভোগ করার স্থান।

এরই মাঝে মৌলভীবাজার সদর উপজেলা মনু নদীর পাশে গড়ে তোলা হয়েছে নতুন পর্যটন স্থান, রয়েছে প্রবীণাঙ্গন, কুদালী ছড়ার দু’পাশ দিয়ে ওয়াক ওয়ে।

রাজনগরে রয়েছে ময়নার দোকান, মালাই চায়ের চৌধুরী বাজার, বিভিন্ন স্থানে রয়েছে এমন অনেক দোকান ব্যতিক্রমী দোকান যেখানে তারমধ্যে এখন বসে আছি এমনই একটি দোকানে বসে লিখছি।

এই দোকানটি প্রায় এক যুগ হয়ে গেছে খুব কম মানুষই আছে যে দোকানটি চিনে না। দোকানটি তেমন বড় স্থান নিয়ে নয়, একটা ব্যস্থতম স্থানে। মরছা গুড়ের চা খাবো বললেই চলে আসে এই দোকানের নাম।

এই দোকানে শুধু মরছা গুড়ের চা নয় আরো অনেক রকমের চা ছিল। এখন শুধু চা নয় রয়েছে আরো অনেক কিছু। একের পর এক লিখে রাখলে হয়তো ভালবাসাময় হয়ে থাকবে।

জানেন এখন এই দোকানটিতে রয়েছে লেখা এখানে উন্নতমানের মেশিনের তৈরি চা – কফি। ব্যতিক্রমী লেখা হলো ” আপনি কি খাচ্ছেন? জেনে খান আরো অনেক আছে।

চলুন জেনে নেই কি কি আছে? প্রথমেই মরছা গুড়ের চা যার রকম রয়েছে বিভিন্ন প্রকারের।
১। কাশ্মীরের বিক্ষাত গোলাপী চা
২। কাশ্মীরের লাড়া চা
৩। চিনা বাদামের চা
৪। বিরনচালের চা
৫। সিদ্ধচাউলের চা
৬। আতব চাউলের চা
৭। তেতুলের চা
৮। আমের চা
৯। বড়ইয়ের চা
১০। কাশ্মীরের কফি
১১। ব্লাক কফি
১২। মিল্ক কফি
১৩। কোল্ড কফি
১৪। মরছা গুড়ের রং চা
১৫। মরছা গুড়ের দুধ চা
১৬। মরছা গুড়ের গুড়া দুধ চা
১৭। লেবু রং চা
১৮। লেবু পাতা রং চা
১৯। আদা রং চা
২০। তেজ পাতা রং চা
২১। তুলশী চা
২২। অর্জুন চা
২৩। আমলকী চা
২৪। পুদিনা চা
২৫। দুধ চা
২৬। হরলিক্সের দুধ চা
২৭। গুড়া দুধের চা
২৮। টাঙ্গাইলের চমচম
২৯। গরম দুধ
৩০। বিখ্যাত বগুড়ার দই
৩১। দই চিড়া
৩২। গুড়া দুধ দিয়ে দই
৩৩। লাচ্ছি
৩৪। জুস
৩৫। সিদ্ধ ডিম
৩৬। তেজপাতা রং চা
৩৭। আদা রং চা
৩৮। ত্রিফলা চা
৩৯। লেমন মালটা
৪০। মাসালা টি
৪১। ইসবগুল টি
৪২। জিরা ব্লাক টি
৪৩। মরিঙ্গা আদা চা
৪৪। গ্রীণ টি
৪৫। আদা ব্লাক চা
৪৬। গরম দুধ
৪৭। নারকেলের দুধ চা
৪৮। ওভালটিন দুধ চা
৪৯। হরলিক্স দুধ চা
৫০। হরলিক্স গরম দুধ
৫১। চালের গুঁড়ার চা
৫২। মরিচের গুঁড়োর চা

৫৩ তে এসে আর চায়ের কথা না বলে যেখানে লাইন লেগে যায় পুষ্টিকর খিচুড়ি আর ছোলা ডিম দিয়ে বিরিয়ানি। হিমশিম খেতে হয় সার্ভিস দিতে গিয়ে। আরো বিষয় হলো ২৪ ঘন্টাই দোকানটি খাবারের সেবা দিতে প্রস্তুত থাকে সবাই।

লিখতে লিখতে ভুলেই গেছি এখনো তো স্থান আর নামটা লেখা হয়নি। দোকানটি বিখ্যাত মৌলভীবাজার জেলার সদর উপজেলার ঢাকা বাসস্ট্যান্ডের এক যুগের বেশি সময় ধরে চালু থাকা হাসেম গাজী ভাইয়ের হাসেম ভেরাইটিজ স্টোর। শুধু নামে নয় বাস্তবেই ভেরাইটিজ স্টোর।

আজকের রাত পার করলাম এই বিখ্যাত হাসেম গাজী ভাইয়ের হাসেম ভেরাইটিজ স্টোরে সবাইকে স্বাগতম জানিয়ে আজকের লেখা এখানেই সমাপ্ত করলাম আজকের মতো। নতুন কিছু নিয়ে থাকবে পরবর্তী লেখায়।

 

মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন চৌধুরী
লেখক, কবি, গবেষক, গণমাধ্যম ও মানবাধিকার কর্মী।
মৌলভীবাজার, সিলেট, বাংলাদেশ।
ইমেইল – pressmuazzambd@gmail.com

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
All rights reserved © 2019
Design By Raytahost