1. news@esomoy.com : বার্তা বিভাগ : বার্তা বিভাগ
  2. admin@esomoy.com : admin :
শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ১২:৩১ অপরাহ্ন

শিক্ষার বাতিঘর এক্সিলেন্ট আইডিয়াল স্কুল

মোঃ মোখলেছ মোল্লা
ইপেপার / প্রিন্ট ইপেপার / প্রিন্ট

শিক্ষার বাতিঘর এক্সিলেন্ট আইডিয়াল স্কুল

স্টাফ রিপোর্টারঃ

শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার কোদালপুর ইউনিয়নের বালুচর এলাকাটি একটি প্রত্যন্ত চরাঞ্চল।

এ অঞ্চলের শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার জন্য ছিল না ভালো একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।

অল্প বয়সেই ঝরে পড়তো অনেক শিশুশিক্ষার্থীর শিক্ষাজীবন।

এসব শিক্ষার্থীর কথা মাথায় রেখে এক যুগ আগে চরাঞ্চলটিতে ব্যক্তি উদ্যোগে গড়ে তোলা হয় ‘এক্সিলেন্ট আইডিয়াল স্কুল’ নামের একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।

বর্তমানে চরাঞ্চলের শিক্ষার্থীদের মধ্যে শিক্ষার বাতিঘর হয়ে উঠেছে স্কুলটি।

গোসাইরহাট উপজেলার কোদালপুর ইউনিয়নের বালুচর এলাকায় প্রতিষ্ঠানটির একযুগ পূর্তি উপলক্ষে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে অংশ নেন প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শরীয়তপুরের পুলিশ সুপার মাহবুবুল আলম। প্রধান আলোচক ছিলেন আলহাজ সফুরা বেগম মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ দৌলত আহমেদ চৌধুরী।

অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কবি ও প্রাবন্ধিক শ্যামসন্দর দেবনাথ, গোসাইরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পুস্পেন দেবনাথ, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা লুৎফর রহমান, কোদালপুর ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান প্রমুখ।

স্বাগত বক্তব্য দেন এক্সিলেন্ট আইডিয়াল স্কুলের পরিচালক নকিব মুকশি।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন স্কুলের প্রধান উপদেষ্টা আলী জিয়াদ হোসেন।

এসময় শিশুরা সংগীত, নৃত্য ও আবৃত্তি উপস্থাপন করে অতিথিদের মুগ্ধ করেন।

পুলিশ সুপার মাহবুবুল আলম তার বক্তব্যে বলেন, চরাঞ্চলে শিক্ষা বিস্তার করা একটি কঠিন কাজ। এখানকার মানুষরা জীবিকার তাগিদে ব্যস্ত ও সংগ্রামী জীবন কাটান।

নানা সীমাবদ্ধতায় সন্তানদের পড়ালেখা করানোর দিকে মনোযোগ দিতে পারেন না।

এমন একটি বাস্তবতায় এক যুগ ধরে এক্সিলেন্ট আইডিয়াল স্কুল যে কাজটি করে যাচ্ছে তা সত্যিই প্রশংসনীয়।

অধ্যক্ষ দৌলত আহমেদ চৌধুরী বলেন, ব্যক্তি উদ্যোগে শিশুদের পড়ালেখা করানো এ স্কুলটি আমাদের মুগ্ধ করেছে। চরের শিশুরাও পড়ালেখা শিখে উন্নত জীবন গড়তে পারে এমন ধারণা ও বিশ্বাস আমাদের আছে।

স্কুলের পরিচালক কবি নকিব মুকশি বলেন, কচিকাঁচাদের সার্বিক বিকাশের লক্ষ্যে স্কুল পরিচালনা করে যাচ্ছি।

আমি স্বপ্ন দেখি আমার বাংলাদের প্রতিটি গ্রামে অঞ্চলে এমন বটবৃক্ষ তৈরি হোক, যার শিক্ষার হিমেল হাওয়ায় আজকের শিশু আগামী দিনের কান্ডারি হয়ে দাঁড়াবে।

মো.মি/এসময়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
All rights reserved © 2019
Design By Raytahost